রাজধানীর উত্তরায় চাকরির নামে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণা


প্রকাশিত : ১০ আগস্ট ২০২২

রাজধানীর উত্তরায় নারী ও শিশু কল্যান কেন্দ্র নামে একটি অফিস খুলে বিভিন্ন পত্রিকায় কথিত নামিদামি প্রতিষ্ঠানে আকর্ষণীয় বেতনে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে ফাঁদ পাততো একটি চক্র। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে শিক্ষিত ও বেকার যুবকেরা চাকরির জন্য যোগাযোগ করলেই শুরু হতো প্রতারণা। চাকরির জামানত ও দামি ল্যাপটপ, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ধরনের প্রলোভন দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎ করত চক্রটি। প্রতারণার অভিযোগে প্রতারক চক্রের মূলহোতাসহ তিন প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।গতকাল মঙ্গলবার রাতে উত্তরার দক্ষিণখান থানার আশকোনা এলাকা অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগে সংস্থাটির প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সিআইডির সিরিয়াস ক্রাইম ইউনিটের বিশেষ পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম। গ্রেপ্তারকৃতেরা হলো-চক্রের প্রধান মো. মজিবুর রহমান (৪২), তাঁর দুই নারী সহযোগী লাবনী আক্তার (২৩) ও জান্নাতুল ফেরদৌস ময়না (২০)। এ সময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ১৪টি মোবাইল ফোন, ৬০ বিভিন্ন কোম্পানির সিম কার্ড, চাকরিপ্রার্থীদের ৪০টি জাতীয় পরিচয়পত্র, ১৪৮টি বায়োডাটা ও ৩০ এর অধিক ভূইফোড় কোম্পানি/এনজিওর নামে তৈরি করা নিয়োগপত্র ও রাবার স্ট্যাম্প সিল জব্দ করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম বলেন, রাজধানীর উত্তরায় নারী ও শিশু কল্যান কেন্দ্র নামে একটি অফিস খুলে বিভিন্ন পত্রিকায় ভুঁইফোড় কোম্পানির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে চাকরি দেওয়ার নামে অর্থ আত্মসাৎ করত চক্রটি। অভিযান চালিয়ে ও প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই চক্রের ফাঁদে পা দিয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষিত ও বেকার অসংখ্য যুবকরা প্রতারতি হচ্ছে। বিষয়ে সাইবার পুলিশ সেন্টার (সিপিসি) তে একটি অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার চক্রের প্রধান মজিবুর রহমানকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম জানান, গত পাঁচ বছরে প্রায় ২৫ চাকরি প্রত্যাশিদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। চাকরি প্রত্যাশিদের কাছ থেকে বিভিন্ন কৌশলে প্রায় দুই কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে সে। চাকরির নামে প্রতারণার অভিযোগে মুজিবুর বেশ কয়েকবার গ্রেপ্তার হয়েছে। পরবর্তীতে জামিনে বের হয়ে এসে একই কাজ করে আসছে। গ্রেপ্তার চক্রের সদস্যদের বিরুদ্দে ডিএমপির উত্তরা পশ্চিম ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, প্রতারণার অভিযোগো মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ