আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করায় ইউটিউবার মিথুন গ্রেফতার


প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারি ২০২৩

নওগাঁর নিয়ামতপুরের মহা ফান ও বিজি টিভির পরিচালক মতিউর রহমান মিথুনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ। মঙ্গলবার রাজধানীর রমনা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ- তিনি মেয়েদের প্রতি অসম্মানজনক ও যৌন উত্তেজনা সৃষ্টিকারী বিভিন্ন ভিডিও তৈরি করে অনলাইনে সম্প্রচার করেন। ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা এসব ভিডিওতে তিনি অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছেলে-মেয়েদের ব্যবহার করেন। তাছাড়া বাংলাদেশের বিচার বিভাগ নিয়ে বিভ্রান্তিকর ভিডিও তৈরি করেন তিনি। সিটি-সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের ডিসি আ ফ ম আল কিবরিয়া তার গ্রেফতারের খবর নিশ্চিত করেছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যুগান্তরকে তিনি বলেন, মিথুন ফানি ভিডিওর নামে অশ্লীল, আপত্তিকর ও কুরুচিপূর্ণ ভিডিও তৈরি করছিলেন। এরপর বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সেগুলো আপলোড করে আসছিলেন; যা ইন্টারনেটে অস্বস্তি ও দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করে। কয়েকজন ভুক্তভোগী তার বিরুদ্ধে অভিযোগও করেছেন। এরপর তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে মঙ্গলবার পুলিশ বাদী হয়ে রমনা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেছে।

মতিউর রহমান মিথুন নিয়ামতপুর উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের ঈশ্বর দেবত্তর (কালাইডাঙ্গা) গ্রামের রজব আলীর ছেলে।গ্রেফতারের ঘটনা জানাজানি হলে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ও সচেতন মহলে স্বস্তি ফিরে এসেছে। কয়েকজন অভিভাবকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ইউটিউব ও ফেসবুকে যেভাবে কুরুচিপূর্ণ ভিডিও ছাড়া হতো তাতে স্কুল-কলেজগামী ছেলেমেয়েরা বিপথগামী হচ্ছিল। মিথুনকে গ্রেফতারে তারা খুশি।

ঈশ্বর দেবত্তর গ্রামের বাসিন্দা এমাজ উদ্দিন বলেন, ফানি ভিডিওর নামে তারা গ্রামে একটা স্টুডিও তৈরি করেছিল। এখানে তারা যা শুরু করেছিল তাতে গ্রামে টিকে থাকাই যাচ্ছিল না। এদের কারণে গ্রামের তিনটা মেয়ে লেখাপড়া ছেড়ে অন্যের হাত ধরে চলে গেছে। তার গ্রেফতারের খবর শুনে খুব ভালো লাগছে।

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ