বিদ্রোহীদের হাতে মিয়ানমার জান্তা বাহিনীর ১৫ সেনা নিহত


প্রকাশিত : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

মিয়ানমারের কায়াহ রাজ্যে বিদ্রোহী সশস্ত্র গোষ্ঠীর হাতে জান্তা বাহিনীর জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাসহ অন্তত ১৫ জন সৈন্যের মৃত্যু হয়েছে। গত সোমবার দেশটির কায়াহ রাজ্যের দেমোসো শহরে বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর সমন্বয়ে গঠিত সশস্ত্রবাহিনীর সঙ্গে জান্তা বাহিনীর সংঘর্ষে ওই ১৫ জনের মৃত্যু হয়। থাইল্যান্ডভিত্তিক মিয়ানমারের সংবাদমাধ্যম ইরাবতীর এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

ইরাবতীর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কারেনি রেভোলিউশন ইউনিয়ন (কেআরইউ) দেমোস পিপল’স ডিফেন্স ফোর্সের (পিডিএফ) সশস্ত্র যোদ্ধাদের একটি দল মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ডিভিশন–৬৬ এর একটি দলের ওপর আক্রমণ চালায়। ৭০ জনের ওই দলটি ভাগ হয়ে একটি স্কুল একটি আশ্রমে ঘাঁটি গেড়েছিল। কেআরইউ জানিয়েছে, তাঁরা গত সোমবার সন্ধ্যায় জান্তা বাহিনীর সৈন্যদের ওই দুই অবস্থানে হামলা চালালে ১৫ জনের মৃত্যু হয়।

কেআরইউ–এর এক মুখপাত্র ইরাবতীকে গতকাল বুধবার বলেছেন, প্রতিরোধ যোদ্ধারা জান্তা বাহিনীকে খুব কাছে থেকে আক্রমণ করে। উভয় পক্ষের মধ্যে তীব্র সংঘর্ষের পর জান্তাবাহিনীর ১৫ জন সৈন্যের মৃত্যু হয়। আমরা ধারণা করছি, এ সময় বাহিনীর একজন কর্নেলও মারা গেছেন। ওই মুখপাত্র আরও জানিয়েছেন, জান্তা বাহিনীর সৈন্যরা যুদ্ধস্থল থেকে পশ্চাদপসরণের সময় বলাবলি করছিল যে, তাদের এক জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা মারা গেছেন।

মিয়ানমারের সশস্ত্রবাহিনীর সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ওই সংঘর্ষে জান্তাবাহিনীর কর্মকর্তা লে. কর্নেল অং কো ও মারা গেছেন। তিনি ৬৬ ডিভিশনের ৬ নম্বর ব্যাটালিয়নের কমান্ডার ছিলেন। তবে, কেআরইউ জানিয়েছে, যে কর্মকর্তা মারা গেছেন তাঁর পদমর্যাদার বিষয়ে তাঁরা নিশ্চিত নয়।

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ