পাকিস্তানে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে ১১ ‘জঙ্গি’ নিহত


প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারি ২০২৩

সন্ত্রাসী হামলা ঠেকাতে আগাম পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পরদিনই পাকিস্তানে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে ১১ ‘জঙ্গি’ নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার খাইবার পাখতুনখওয়া প্রদেশের দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তান জেলায় অভিযানটি চালানো হয়। অভিযানে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি গোষ্ঠী তেহরিক-ই-তালেবানের (টিটিপি) এক প্রধান কমান্ডার নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডন অনলাইন।

একই প্রদেশের লাক্কি মারওয়াত ও ডেরা ইসমাইল খান জেলায় পুলিশকে লক্ষ্য করে চালানো পৃথক দুটি হামলায় ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর গণমাধ্যম শাখা জানিয়েছে, গোয়েন্দা সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে ওয়ানা শহরে টিটিপি জঙ্গিদের একটি গোপন আস্তানায় অভিযান চালায় নিরাপত্তা বাহিনী, এতে টিটিপি কমান্ডার হাফিজুল্লাহ ও দুই সম্ভাব্য আত্মঘাতী বোমারুসহ অন্তত ১১ জন নিহত হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ (আইএসপিআর) বলেছে, এই অভিযান ‘বড় ধরনের একটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নস্যাৎ করেছে’। বিবৃতিতে বলা হয়, “ব্যাপক গোলাগুলি চলাকালে সন্ত্রাসবাদী কমান্ডার হাফিজুল্লাহ (৪০) ওরফে টোর হাফিজ ও দুই আত্মঘাতী বোমারুসহ ১১ সন্ত্রাসবাদী নিহত হয়। এ সময় নিহত সন্ত্রাসবাদীদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।”

স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, টিটিপি কমান্ডার হাফিজুল্লাহ বেশ কয়েকটি থানায় হামলা চালানোর ঘটনাসহ চাঁদাবাজি ও স্থানীয়দের অপহরণের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। এদিকে ডেরা ইসমাইল খানে পোলিও টিকা টিমের নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশের একটি দলের ওপর জঙ্গিদের হামলায় পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হন। তাদের কারও অবস্থা সঙ্কটজনক নয় বলে জানিয়েছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। লাক্কি মারওয়াতে পোলিও টিকা কর্মীদের ওপর চালানো একই ধরনের পৃথক আরেকটি হামলায় পুলিশের এক রক্ষী আহত হন।

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ